যে কোন ফ্যাসিস্ট স্বৈরাচারী সরকারের একটা কমন বৈশিষ্ট্য

যে কোন ফ্যাসিস্ট স্বৈরাচারী সরকারের একটা কমন বৈশিষ্ট্য আছে।  এরা শক্তিপ্রয়োগে উৎসাহী। শক্তিপ্রয়োগ মানে হচ্ছে যারা তার জন্য থ্রেট হতে পারে তাদের মারপিট, গুম, খুন, ভয়ের সংস্কৃতির মাধ্যমে দমন করা ।  এখন সাধারন মানুষকে দমন করলে তো হবে না। কিংবা যে কোন মানুষকে গুম খুন করলে তো হবে না। দেশের জনগণ খেপে উঠবে।  এইজন্য তারা বিরোধীদের পশুর স্তরে নামিয়ে নিয়ে আসে সবার আগে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের জামার্নরা লাখ লাখ ইহুদীদের মারার আগে  তাদেরকে কুকুরের মতো ঘৃণ্য জীব বলে পরিচয় দিয়েছিলো।  বাংলাদেশে পাকিবাহিনী গণহত্যার আগে আধা হিন্দু আর জন্তু বলে পরিচয় দিয়েছিলো।  বর্

Continue Reading

ফুটবলরঙ্গ (ক্রীড়ারঙ্গ?) - ৪

বাংলাদেশীদের ফুটবল উন্মাদনা নিয়ে নানাজন নানান বিশ্লেষন করছেন। কোনটা গ্রহনযোগ্য কোনটা এ্যানেকডোটাল। তবে সব গুলো পড়লে একটা ধারনা দাঁড়ায় মনের মধ্যে যে আসলে এই ফেনমেননের কারন কি?  যে কোন স্টেডিয়াম ভর্তি গেম আসলে প্রাচীন রোমান গ্লাডেটরিয়াল কনটেস্ট। রোমের কলোসিয়ামে হাজার হাজার সিংহ বাঘ মোষ বুনোজন্তু ধরে আনা হতো মারপিট দেখার জন্য। স্লেভদের ধরে এনে ছেড়ে দেয়া হতো পরস্পরের সাথে মারামারা করার জন্য।  কথিত আছে, রোমের কোলসিয়ামের একখন্ড মাঠে যতো রক্ত ঝড়ছে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে স্ট্যালিনগ্রাদে এতো রক্ত ঝড়ে নাই।  গ্যালারীতে উল্লাস আর রক্ততৃষ্ণা। কিছুটা ধরা পেতে গ্লাডিয়েটর মুভিট

Continue Reading

যেখানেই ক্রসফায়ারের সমর্থনকারী পাওয়া যাবে স্ক্রিনশট নিয়ে রাখেন রেফারেন্স সেভ করে রাখেন।

ক্রসফায়ারকারী আর ক্রসফায়ার সমর্থনকারী সবাইকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। উপর থেকে নির্দেশ এসেছে তাই খুন করেছি, দেশের ভালোর জন্য খুন করেছি, মাদক ধ্বংস করতে খুন করেছি, সন্ত্রাসী মারতে খুন করেছি এসব বলে পার পাওয়া যাবে না। ৪২ বছর পর রাজাকারের বিচার হতে পারে ২০ বছর এই ক্রসফায়ারকারী অফিসার আর পালের গোদা গুলোকে ধরা হবে। পাকিস্তানীরাও দেশ বাচানোর জন্য মানুষ হত্যা করেছিলো, সিরাজ শিকদারকে তৎকালীন আওয়ামী সরকার রাজনৈতিক হত্যা করে ক্রসফায়ারের উদ্বোধন করেছিলো, রক্ষীবাহিনী ব্যাপক হারে বিনাবিচারে হত্যা করেছিলো। রাজাকাররা পাকিস্তানীদের রাষ্ট্রীয় গণহত্যা সমর্থন করেছিলো। নিজেদের দেশ ভেবেই খুন গুলো করেছিলো।

Continue Reading